করোনার মহামারিতে অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছে ডাঃ মোঃ আহনাফ করিম। মোহাম্মদ রবিউল্লা সুমন, জেলা প্রতিনিধি, গাজীপুর।

করোনার মহামারিতে অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছে ডাঃ মোঃ আহনাফ করিম।
মোহাম্মদ রবিউল্লা সুমন, জেলা প্রতিনিধি, গাজীপুর।
বর্তমানে করোনার দুর্যোগে দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থার ভয়ঙ্কর অবস্থা বিদ্যমান। চিকিৎসক সংকটে সব ধরনের রোগীরা দিশেহারা। ঠিক সেই সময় গাজীপুর মহানগর চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় (ফেয়ার ডায়াগনস্টিক এন্ড কনসালটেশন সেন্টার) নামে একটি বেসরকারি ক্লিনিকে একজন মানবিক চিকিৎসক সেবা দিয়ে যাচ্ছেন।
লক ডাউন উপেক্ষা করে করোনার ভয়কে জয় করে শুরু থেকে এখন পর্যন্ত সপ্তাহে চার দিন রোগী দেখে যাচ্ছে। অত্র এলাকার সাধারন রোগীদের আশা ও ভরসার নাম ডাঃ আহনাফ করিম।
তিনি কোন সরকারি চাকরির বাধ্য বাধকতায় রোগী দেখছেন না। শুধু মাত্র মানবিকতা আর নিজের দ্বায়িত্ববোধ থেকে নিরবচ্ছিন্ন ভাবে চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। এই লক ডাউনের মাঝেও প্রতিনিয়ত উনার চেম্বারের সামনে চিকিৎসার জন্য অপেক্ষামান রোগীর দীর্ঘ লাইন দেখা যায়। রোগীদেরকে জিজ্ঞেস করা হলে তারা বলে আমরা চিকিৎসা নিতে হাসপাতালে কিংবা ক্লিনিকে গেলে জ্বরের কথা বললে অনেকেই চিকিৎসা দিতে চায় না। অবশেষে আমরা স্যারের কাছ থেকে সুস্থ হয়ে ওঠা রোগীদের কাছ থেকে জানতে পেরে স্যারের কাছ থেকে চিকিৎসা নিলাম। পরিক্ষা করে আমার টাইফয়েড জ্বর ধরা পড়েছে।
এই দুর্যোগের সময় আপনার চেম্বারের সামনে এতো রোগীর ভীর আপনার ভয় লাগে না স্যার?
এই প্রশ্নের জবাবে dainiksakalbd.com কে ডাঃ আহনাফ করিম বলেনঃ
‘’চাকরি যাওয়ার ভয় নাই আক্রান্ত হওয়ার ভয় আছে। আর একটা ভয় আমি সব চেয়ে বেশি পাই তা হলো একজন চিকিৎসক হিসেবে আমি আমার দ্বায়িত্ব সঠিক ভাবে পালন করতে পারছি কি না। আমি চাকরির ভয়ে রোগী দেখছি না; সরকারি প্রনোদনা পাবো এই আশায় ও রোগী দেখছি না। আমি আমার বিবেকবোধ থেকে রোগী দেখতেছি। এখানে আমার সহকারী যারা আছে তাদেরকে বিশেষ ভাবে ধন্যবাদ জানাই তারা এই দুর্যোগের সময় ভয় না পেয়ে কাজ করে যাচ্ছে। ইনশাআল্লাহ আমি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার আগ প্রর্যন্ত এ মানব সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাটেক’’
অন্য এক প্রশ্নের জবাবে স্যারের ব্যাক্তিগত সহকারী রেজাউল করীম আমাদের জানান ‘’ আপনারা স্যারকে সকাল ১১ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত উক্ত চেম্বারে পাবেন। উনার সাক্ষাতকারের জন্য ০১৭৯১-৮৭২৫৮৮ এই নাম্বারে যোগাযোগ করতে পারবেন’’।